●• সর্বদা কেনো এমন হয়? •●

❖ আপনি কি কখনো ভেবেছেন যে, সর্বদা কেনো এমন হয়? —
❂ সর্বদা কেনো এমন হয়? — যে, একজন খৃস্টান নারী যখন তার সারাটি জীবন নিজ ধর্মের জন্য উৎসর্গ করে দেয়, তখন তাকে খুব সম্মান দেয়া হয় যে, সে নিজেকে ঈশ্বরের কাছে সঁপে দিয়েছে। কিন্তু যখন কোনো মুসলিম নারী এমনটি করে, তখন লোকেরা বলে যে, সে জুলুমের শিকার?
❂ সর্বদা কেনো এমন হয়? — যে, ইহুদি বা শিখেরা দাড়ি রাখলে সে তার ধর্ম পালনকারী গণ্য হয়। কিন্তু যখন কোনো মুসলিম দাড়ি রাখে, তখন তাকে কট্টরপন্থী বলা হয়?
❂ সর্বদা কেনো এমন হয়? — যে, যখন কোনো (অমুসলিম) স্ত্রীলোক দিনের সারাটা সময় ঘরের মধ্যে কাটায়; নিজের সন্তানদের দেখাশোনা করে, তখন সে খুব দায়িত্বশীল গণ্য হয়। কিন্তু যখন কোনো মুসলিম রমনী এমনটি করে, তখন লোকেরা বলে যে, সে চার দেয়ালের মধ্যে বন্দী! তার স্বাধীনতা দরকার?
❂ সর্বদা কেনো এমন হয়? — যে, যখন কোনো (অমুসলিম) শিক্ষার্থী নিজ বিষয়ে এগিয়ে যায়, তখন তাকে সফল শিক্ষার্থী বলা হয়। কিন্তু যখন কোনো মুসলিম ছেলে ইসলামী শিক্ষায় এগিয়ে যায়, তখন তার ভবিষ্যৎ বেকার গণ্য করা হয়?
❂ সর্বদা কেনো এমন হয়? — যে, যখন কোনো ইহুদি বা খৃস্টান কাউকে খুন করে বসে, তখন তার ধর্ম জিজ্ঞাসা করা হয় না। কিন্তু যখন কোনো মুসলিমকে কোনো অপরাধে গ্রেফতার করা হয়, তখন ইসলামকে অপমান করা হয়?
❂ সর্বদা কেনো এমন হয়? — যে, যে কোনো (অমুসলিম) মেয়ে যে কোনো ধরণের পোশাক পরে কলেজে যেতে পারে। কিন্তু যখন কোনো মুসলিম মেয়ে হিজাব পরে কলেজে যায়, তখন তাকে গেটের মধ্যেই আটকে দেওয়া হয়?
❂ সর্বদা কেনো এমন হয়? — যে, যখন কোনো (অমুসলিম) ব্যক্তি নিজের জীবন বাজি রেখে মানুষের জীবন বাঁচায়, তখন তাকে বীর বাহাদুর বলা হয়। কিন্তু যখন কোনো ফিলিস্তিনী নাগরিক নিজের জীবন বাজি রেখে- নিজের বাচ্চাকে গুলি লাগা থেকে বাঁচায়; নিজের ভাইকে দুশমনের হাত থেকে বাঁচায়; নিজের মা-বোনের ইজ্জত বাঁচানোর জন্য শত্রুর সাথে যুদ্ধ করে; নিজের ঘরকে আগুন লাগা থেকে বাঁচায় এবং নিজের মসজিদকে রক্ষা করে, তখন তাকে উগ্রপন্থী বলা হয়?
❂ সর্বদা কেনো এমন হয়? — যে, আমরা যে কোনো প্রকারের সমস্যায় যে কোনো ধরণের সমাধান গ্রহণ করে নিই। কিন্তু যখন আমরা এর উত্তর ইসলামে পাই, তখন তা অস্বীকার করে বসি?
❂ সর্বদা কেনো এমন হয়? — যে, যখন কোনো (অমুসলিম) ড্রাইভার কাণ্ডজ্ঞানহীনভাবে গাড়ি চালায়, তখন কোনো গাড়িকে দোষী সাব্যস্ত  করা হয় না। কিন্তু যখন কোনো  মুসলিম ভুল করে বসে, তখন ইসলামকেই দোষী সাব্যস্ত করা হয়?
❂ সর্বদা কেনো এমন হয়? — যে, লোকেরা সংবাদপত্র ও মিডিয়ায় প্রচারিত প্রত্যেক বিষয় বিশ্বাস করে নেয়, কিন্তু কুরআনে বর্ণিত বিষয়সমূহে আপত্তি করে বসে?
❖ এতোসব বিষয় (অর্থাৎ, ইসলামকে দোষী ও অভিযুক্ত করা) সত্ত্বেও বর্তমানে সারা দুনিয়ায় সবচে’ দ্রুত গতিতে ছড়িয়ে পড়া ধর্ম হলো- ইসলাম!

@ হিন্দি থেকে অনুবাদ-
_____ মানসূর আহমাদ

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s